এক মাসে ওজন কমানোর ১০ টিপস

এক মাসে ওজন কমানোর ১০ টিপস

ডায়েট, শরীরচর্চার পাশাপাশি নিয়মমাফিক চলার চেষ্টা করলে তবেই ওজন কমানো সম্ভব। তবে জানেন কি, জিমে না গিয়ে এমনকি ডায়েট না করেও কিছু বিষয় মাথায় রেখেই ওজন কমানো সম্ভব। তাও আবার এক মাসের মধ্যে।

ফিটনেস বিশেষজ্ঞদের মতে, ওজন কমানো অতটাও কঠিন বিষয় নয়। খাদ্যতালিকা থেকে ভাজা-পোড়া ও আর মিষ্টিজাতীয় খাবার বাদ দিলে এবং সামান্য হাঁটাহাঁটি করলেই দ্রুত ওজন কমানো সম্ভব। জেনে নিন একমাসে ওজন কমানোর ১০ টিপস-

>> ঘরেই কিছু ব্যায়াম করুন। যেমন- হাঁটাহাঁটি, দড়ি লাফ, কার্ডিও কিছু মুভমেন্ট এগুলো করলেই যথেষ্ট। দিনে অন্তত ৩০-৪০ মিনিট ব্যায়াম করুন। টানা ৩০ দিন অর্থাৎ এক মাস দিনের যেকোনো একটি নির্দিষ্ট সময়ে ব্যায়াম করুন। এতে চটজলদি মেদ তো ঝরবেই, সঙ্গে দেহের ক্ষমতাও বাড়বে।

>> পাশাপাশি ডায়েটের দিকেও নজর দিতে হবে। কারণ ওজন কমাতে ডায়েটিংয়ের ভূমিকা ৭০ শতাংশ বলে মত ফিটনেস বিশেষজ্ঞদের। ডায়েটে ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার ও শাক-সবজি বেশি করে খেতে হবে। ফাইবার বহুক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখে। ফলে শরীরে অতিরিক্ত ক্যালরির প্রবেশ আটকে যাওয়ার কারণে ওজন কমতে সময় লাগে না।

>> শরীরচর্চা চলাকালীন শরীরে যাতে উপকারী ফ্যাটের ঘাটতি মেটে সেদিকেও নজর দেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন ফিটনেস বিশেষজ্ঞরা। এজন্য ভালো ফ্যাট গ্রহণ করতে হবে। নিয়ম করে বাদাম, অলিভ অয়েল, ঘি ও বাটার রাখুন। পাশাপাশি সামুদ্রিক মাছ ও পরিমিত মাংস খেতে হবে।

>> বেশি করে পানি খেতে হবে। যত পরিমাণে পানি খাবেন; ততই ওয়াটার রিটেনশন কম হবে। ফলে দ্রুত ওজন কমবে।

>> ফাস্টফুড, কোল্ড ড্রিঙ্ক, জাঙ্ক ফুড, তৈলাক্ত ও মশালাদার খাবার খাওয়া একেবারেই চলবে না।

>> সিঙারা, তেলেভাজা এবং লুচির মতো ভাজা জাতীয় খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন। মিষ্টি খাওয়াও চলবে না।

>> বেশি করে ফল খেতে হবে। কারণ আছে ফাইবার, ভিটামিন এবং মিনারেল। যা শরীর গঠনে কাজে লাগে।

>> ইচ্ছা হলে ডার্ক চকোলেট খেতে পারেন। কারণ এতে অনেক পুষ্টিগুণ আছে। তবে অবশ্যই পরিমিত খেতে হবে।

>> সাদা ভাতের পরিবর্তে ব্রাউন রাইসের মতো কমপ্লেক্স কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার খেতে হবে। তাতে ওজন কমবে দ্রুত।

>> প্রক্রিয়াজাতকরণ সব খাবার এড়িয়ে চলুন। সাদা পাউরুটি ভুলেও খাবেন না। প্রয়োজনে ব্রাউন ব্রেড খান। সেইসঙ্গে সাদা ময়দার পরিবর্তে লাল আটা বা হোলগেইন ময়দার রুটি খান।

Source: